মহানবীকে কটূক্তির প্রতিবাদে রাষ্ট্রীয়ভাবে নিন্দা জানানোর দাবি শাবি শিক্ষার্থীদের

মহানবীকে কটূক্তির প্রতিবাদে রাষ্ট্রীয়ভাবে নিন্দা জানানোর দাবি শাবি শিক্ষার্থীদের

ভারতে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও হযরত আয়েশা (রা.)-কে নিয়ে বিজেপির দুই নেতার কটূক্তির প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ-মিছিল করেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) শিক্ষার্থীরা। এতে প্রায় সহস্রাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

রবিবার (১২ জুন) দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন করেন তারা। মানববন্ধন শেষে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে গোলচত্বরে এসে শেষ হয়। 

মানববন্ধন থেকে শিক্ষার্থীরা হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও  আয়েশা (রা.)-কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে রাষ্ট্রীয়ভাবে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানোর দাবিসহ পাঁচ দফা দাবি এবং ভারতীয় পণ্যসামগ্রী বর্জনের আহ্বান জানান। 

শিক্ষার্থীদের অন্য দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে— ভারতসহ সারাবিশ্বের নির্যাতিত মুসলমানদের উপর অত্যাচার ও হত্যাযজ্ঞ বন্ধে সরকারকে কূটনৈতিক তৎপরতা জোরদার করতে হবে, শাবির কোনো শিক্ষার্থী ভবিষ্যতে অনলাইন বা অফলাইনে রাসূল (সা.)-কে নিয়ে কোনো কটূক্তি করলে তাকে তৎক্ষণাৎ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করতে হবে, মহানবী (সা.) ও অন্যান্য সকল নবী রাসূলের কটূক্তিকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তির বিধান মৃত্যুদন্ড প্রণয়ন ও তার যথাযথ প্রয়োগ নিশ্চিত করতে হবে এবং শাবিতে ইসলামবিরোধী যে কোনো কাজ প্রতিরোধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। 

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ভারতীয় একটি টেলিভিশন বিতর্কে অংশ নিয়ে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) ও তার স্ত্রী আয়েশা (রাঃ) সম্পর্কে অবমাননাকর বক্তব্য দেন ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির সাবেক মুখপাত্র নূপুর শর্মা। পরে একই বিষয়ে টুইটারে পোস্ট দেন আরেক মুখপাত্র নাভিন কুমার জিন্দাল। এরপর এই ঘটনায় ক্ষোভে ফেটে পড়েন মুসল্লিরা৷